1. jagannathpurdak@gmail.com : admin :
  2. lal.sjp45@gmail.com : Lal Sjp : Lal Sjp
  3. sharuarpress@gmail.com : Mdg sharuar : Mdg sharuar
  4. ronypress7@gmail.com : Rony Miah : Rony Miah
বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
শাল্লায় পারিবারিক ও সামাজিক সহিংসতা, মাদক-জুয়া প্রতিরোধে বিট পুলিশিং সভা অনুষ্ঠিত রানীগঞ্জ পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের শুভ উদ্বোধন জগন্নাথপুরে শ্রী শ্রী জগন্নাথ জিউর আখড়ায় ১ লাখ টাকার চেক হস্তান্তর চাঁপাইনবাবগঞ্জে অস্ত্র মামলায় এক ব্যাক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিরাই থানা পুলিশের অভিযানে ৮ আসামি গ্রেফতার জগন্নাথপুরে নাইট মিনিবার ফুটবল টুর্নামেন্টে এর পুরস্কার বিতরণ সম্পন্ন জগন্নাথপুর ইয়াং স্টারের প্রতিষ্ঠাতাকে সংবর্ধনা, নতুন দায়িত্বে: জয়নুর-জুয়েল জগন্নাথপুরে বৃত্তি পরিক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে সম্মাননা স্মারক, সনদপত্র প্রদান অনুষ্ঠান সম্পন্ন এসএমপি’র শ্রেষ্ঠ ওসি হারুন সুনামগঞ্জে অভিনব কায়দায় গাঁজা পাচার, র‌্যাবের অভিযানে ২জন আটক

জগন্নাথপুর উপজেলা মডেল মসজিদে ইমাম নিয়োগে নানা অনিয়মের অভিযোগ

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ২৯১ দেখা হয়েছে

 

স্টাফ রির্পোটার ::

সুনামগঞ্জ জেলার জগন্নাথপুর উপজেলা মডেল মসজিদ, ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের ইমাম ও নিয়োগ কমিটি গঠনের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবরে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
গত ০৯ জানুয়ারী জগন্নাথপুর পৌর শহরের করিমপুর এলাকার মৃত ইছরব আলীর পুত্র মো: আব্দুল ওয়াহিদ জেলা প্রশাসক বরাবরে এ অভিযোগটি দায়ের করেন।
অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, মডেল মসজিদটি পৌর শহরের করিমপুর মৌজায় অবস্থিত। আমি সহ করিমপুর মৌজার স্থায়ী বাসিন্দারা উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদ বর্তমান উপজেলা মডেল মসজিদের নিয়মিত মুসল্লী হিসেবে নামাজ আদায় করি এবং মসজিদের সকল বিষয়ে সার্বিক সহযোগিতা করে আসছি। উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদে নিয়োগ বিধি অনুযায়ী মাওলানা নিজাম উদ্দিন জালালীকে ইমাম নিয়োগ করা হয়েছে।
মসজিদটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহে নতুন রুপে মডেল মসজিদটি তৈরী করা হয়। মডেল মসজিদ নীতিমালায় উল্লেখ আছে যে সমস্ত স্থানে বিদ্যমান মসজিদ ভেঙ্গে তদস্থলে মডেল মসজিদ নির্মান করা হয়েছে সেক্ষেত্রে পূর্বে মসজিদে যারা কমপক্ষে একটানা পাঁচ বছর কর্মরত ছিলেন নিয়োগের ক্ষেত্রে তাঁদেরকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে।
এই নীতিমালা অমান্য করে মডেল মসজিদ তৈরীর পর ঘুষ দুর্নিতীর মাধ্যমে নতুন ইমাম নিয়োগ করা হয়।
এছাড়াও মডেল মসজিদ নীতিমালা ২০২১ অনুযায়ী জগন্নাথপুর উপজেলা মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটি গঠনে ১লা জুন ২০২২ইং তারিখে পৌর শহরের ইকড়ছই গ্রামের মো: মুহিবুর রহমানকে সদস্য করা হয়। মূলত মুহিবুর রহমান একজন ইন্স্যুরেন্স কর্মী। তিনি করিমপুর মৌজার স্থায়ী বাসিন্দা নন। এমনকি উক্ত মসজিদের নিয়মিত মুসল্লী ও নন। তিনি মসজিদ এলাকা থেকে প্রায় ২ কিলোমিটার দূরে ইকড়ছই গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা। যা মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটি ২০২১এর নীতিমালার পরিপন্থী। নীতিমালা অনুযায়ী মসজিদ এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা ও নিয়মিত মুসল্লী হওয়া আবশ্যক।
এদিকে গত ১১ জানুয়ারী সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবরে আরেকটি অভিযোগ দায়ের করেন উপজেলা রানীগঞ্জ ইউনিয়নের গন্ধর্বপুর গ্রামের আব্দুল খালিকের পুত্র মো: আব্দুল মছব্বির। তিনি অভিযোগে উল্লেখ করেন, আমি উপজেলা মডেল মসজিদের মোয়াজ্জিন পদে চাকুরীর জন্য আবেদন করি। যার পরীক্ষা গত ২৯ নভেম্বর ২০২২ ইং সকাল ১০টায় উপজেলা সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা।
আমি নির্দিষ্ঠ সময়ে উপজেলা সম্মেলন কক্ষে পরীক্ষা দেয়ার জন্য উপস্থিত হই। আমার মত অন্যান্য পরীক্ষার্থীরা উপস্থিত হন। পরে সকাল ১১টায় স্বরূপচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষা হবে বলে কর্তৃপক্ষ জানান। স্বরূপচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে পরীক্ষা শুরু হওয়ার পর মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটির ৭নং সদস্য মুহিবুর রহমান নিয়োগ পরীক্ষা কমিটির সদস্য না হয়েও পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে তার ব্যবহৃত স্মার্ট ফোন দিয়ে ভিডিও রেকর্ডিং ছবি উত্তোলন ও ভিডিও কলের মাধ্যমে তার মনোনীত লোকদের প্রশ্নের উত্তর আদান প্রদান করেন। যা তার নামীয় সোসাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেন। যা পরীক্ষা আইন বিরোধী। তিনি ভাইবা বোর্ডে সার্বক্ষণিক অবস্থান করে পরীক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও লাঞ্চিত করেন। যার কারনে আমি সহ অনেক পরীক্ষার্থীরা ভয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর দিতে পারিনি। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সুপার ভাইজার আব্দুল কাইয়ুম বড় অংকের টাকার বিনিময়ে মডেল মসজিদ পরিচালনা নীতিমালা ২০২১ অনুসরন না করে ৭নং সদস্য নিয়োগের প্রস্তাব করে সভাপতির নিকট থেকে স্মাক্ষর নেন। উপজেলা মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটির ৯নং সদস্য নিয়োগে স্থানীয় ঐতিহ্যবাহি মাদরাসার অধ্যক্ষদের সদস্য না করে মডেল মসজিদ থেকে প্রায় ১০কিলোমিটার দূরত্বে থাকা এক সমালোচিত অধ্যক্ষকে সদস্য করা হয়। সদস্য সচিব পরীক্ষার দিন তার মদদপুষ্ঠ বহিরাগত একজন আলেমকে পরীক্ষা বোর্ডে উপস্থিত রাখেন। সদস্য সচিব ও মডেল মসজিদ পরিচালনা কমিটির অবৈধ সদস্য মুহিবুর রহমান মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তার পছন্দের ইমাম ও মোয়াজ্জিন নিয়োগ দিতে সকল প্রস্তুতি সাজিয়ে রাখেন। মুহিবুর রহমান নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের পূর্বেই তথা কথিত চার জনের ছবি সহ তার ফেইসবুকে পোষ্ট করেন। যা অতি উৎসাহি ও প্রশ্নপত্র পাশের ইঙ্গিত বহন করে। এদিকে উপজেলা মসজিদ উদ্বোধনের দিন নব নিয়োগকৃত ইমাম জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রুহের মাগফেরাত ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেক হায়াত ও কল্যাণের জন্য দোয়া না করায় মসজিদ এলাকার মুসল্লীদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্ঠি হয়। পরে ০৭-০২-২০২৩ইং মডেল মসজিদ এলাকার ৫১জন মুসল্লী স্মাক্ষরিত একটি স্মারকলিপি জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে প্রদান করেন।
স্মারকলিপি সহ বিভিন্ন অভিযোগ দায়েরকারীরা উল্লেখিত বিষয়ের আলোকে তদন্তক্রমে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনে প্রধানমন্ত্রী সহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্ঠি কামনা করছেন।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর দেখুন
All rights reserved ©2023 jagannathpurerdak
Design and developed By: Syl Service BD